প্রধান সূচি

পিরোজপুরে গণমনস্তাত্ত্বিক রোগে ২৫ ছাত্রী আক্রান্ত

In-Pirojpur,-25-students-ar

প্রথমে এক ছাত্রী শ্রেণিকক্ষে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে। জ্ঞান হারায়। এরপর একে একে ২৫ ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়ে। ঘটনাটি ঘটেছে আজ শনিবার সকালে পিরোজপুর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে। অসুস্থ শিক্ষার্থীদের পিরোজপুর সদর হাসপাতাল ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চিকিৎসকেরা বলছেন, ওই ছাত্রীরা গণমনস্তাত্ত্বিক অসুস্থতায় আক্রান্ত হয়েছে।

হাসপাতাল ও বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, আজ শনিবার সকাল নয়টার দিকে নবম শ্রেণির সামিয়া আক্তার (১৪) হঠাৎ শ্রেণিকক্ষে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এরপর সে চেতনা হারিয়ে ফেলে। এর কিছুক্ষণ পর একই শ্রেণির জান্নাতুল ফেরদৌস (১৪) ও লামিয়া আক্তার (১৪) অসুস্থ হয়ে পড়ে। এ সময় অসুস্থ ছাত্রীদের দেখতে এসে সপ্তম শ্রেণির রূপসা আক্তার (১২), মিথিলা (১২), জাহিদা সুলতানা (১২), পঞ্চম শ্রেণির সানজানা হক (১০), তাহারিন (১০) ও ঐশী (১০) অসুস্থ হয়ে পড়ে। এরপর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সায়মা আক্তার (১৪) নামের নবম শ্রেণির আরেক ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়ে। অসুস্থ ছাত্রীদের পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য সামিয়া ও লামিয়াকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

পিরোজপুর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মিজানুর রহমান বলেন, সকালে ক্লাস শুরুর পর নবম শ্রেণির এক ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়ে। এরপর তা দেখে অন্যরা অসুস্থ হয়। অসুস্থ ছাত্রীদের দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

পিরোজপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ননী গোপাল রায় বলেন, অসুস্থ ছাত্রীরা গণমনস্তাত্ত্বিক অসুস্থতায় আক্রান্ত হয়েছে। এ রোগে একজন আক্রান্ত হলে তা দেখে অন্যেরাও আক্রান্ত হয়। সাধারণত মেয়েরা এ রোগে আক্রান্ত হয়। এতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। চিকিৎসা দেওয়ার পর রোগীরা সুস্থ হয়ে ওঠে।

পিরোজপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রূপসা আক্তার বলে, ‘নবম শ্রেণির এক আপু অসুস্থ হয়ে পড়ার কথা শুনে তাকে দেখতে যাই। এরপর আমার মাথা ঘুরাতে থাকে। তারপর আর কিছু মনে নেই।’

পিরোজপুর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিলীপ কুমার মৃধা বলেন, কয়েক জন ছাত্রী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় আজ বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ রাখা হয়েছে।