প্রধান সূচি

বঙ্গবন্ধুর খুনিরা কখনোই ভাবেনি তাদের এই হত্যাকাণ্ডের বিচার হবে-শ ম রেজাউল করিম

Pirojpur_Pic_25_08_17

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পিরোজপুর-১ আসন থেকে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর খুনিরা কখনোই ভাবেনি তাদের এই হত্যাকাণ্ডের বিচার হবে। তারা কখনো ভাবতে পারেনি বঙ্গবন্ধু কন্যার নেতৃত্বে বাংলাদেশের মানুষ তাদের বিচার করবে এবং ফাঁসির রশিতে তাদের ঝুলতে হবে। সেই কারণে তারা দম্ভ করে বিদেশি গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিয়েছিল এবং হত্যাকারীদের মধ্যে এর কৃতিত্ব নেওয়ারও প্রতিযোগিতা ছিল। ইতিহাস তাদের ক্ষমা করে নি। যখন বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার শুরু হয় তখন অনেকেই ভাবতে পারেনি এই বিচার সম্পন্ন হবে এবং বিচারের রায় কার্যকর হবে। শুধু বিচার হয়নি, বিচারের রায়ও কার্যকর হয়েছে এবং যারা এখনো পালিয়ে আছে ইনশা-আল্লাহ তাদেরকেও দেশে এনে বিচারের রায় কার্যকর করা হবে।

আজ শনিবার বিকেলে পিরোজপুর সদর উপজেলার শিকদার মল্লিক ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স চত্ত্বরে ‘জাতীয় শোক দিবস’ উপলক্ষে স্থানীয় শেখ রাসেল স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় তিনি আরো বলেন, দলীয় মনোনয়ন যে কেউ চাইতে পারে কিন্তু নৌকা প্রতীক একজনই পাবে। আর আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনা কোন দুর্নীতিবাজ ও সন্ত্রাসীকে মনোনয়ন দিবেন না। তাছাড়া দলীয় মনোনয়ন কে পাবে সেটাও বড় কথা নয়। দেশের স্বার্থে, দেশের মানুষকে ভালো রাখার স্বার্থে, ভালো থাকার স্বার্থে, উন্নয়নের স্বার্থে সকল ভেদাভেদ ভুলে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে হবে।

শ ম রেজাউল করিম আরো বলেন, দেশের উন্নয়ন করতে হলে শেখ হাসিনার সরকারের কোন বিকল্প নাই। তাই আগামী নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আবারও প্রধানমন্ত্রী করতে হবে। সেটা করতে পারলে বর্তমান সরকারের চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে। আর সেটা সম্ভব না হলে চলমান উন্নয়নের ধারা বাধাগ্রস্থ হবে, থেমে যাবে। নির্বাচন আসন্ন সময় খুবই কম, তাই নিজেদের মধ্যে কোন ভুল বোঝা-বুঝি বা গ্রুপিং না রেখে মুক্তিযুদ্ধে স্বপক্ষের সকল শক্তি ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে শেখ হাসিনার সরকারের সাফল্য ও উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে নৌকায় ভোট চাইতে হবে।

শেখ রাসেল স্মৃতি পরিষদের সভাপতি মোর্শেদ কামাল হাওলাদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অন্যন্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আতিয়ার রহমান চৌধুরী নান্নু, শিকদার মল্লিক ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজালাল হাওলাদার, বৈঠাকাটা কলেজের সহকারী অধ্যাপক কামরুজ্জামান সেলিম, শেখ রাসেল স্মৃতি পরিষদের সহ-সভাপতি শান্ত রঞ্জন দাস, শিকদার মল্লিক ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি লায়েক হাওলাদার প্রমুখ।